বড়পুকুরিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্র সচলে কয়লা আমদানির পরিকল্পনা | |

বড়পুকুরিয়া বিদ্যুৎকেন্দ্র সচলে কয়লা আমদানির পরিকল্পনা

কয়লা সংকটে বন্ধ হয়ে যাওয়া দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সেপ্টেম্বরের শুরুতে পুরোদমে চালু হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ সচিব আহমদ কায়কাউস। এজন্য বিদেশ থেকে কয়লা আমদানির পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

একই সঙ্গে ঈদের সপ্তাহজুড়ে উত্তরাঞ্চলে বিদ্যুতের তেমন কোনো ঘাটতি থাকবে না বলেও জানান সচিব।

শনিবার বিদ্যুৎ ভবনে আয়োজিত এক কর্মশালায় তিনি এই কথা জানান। জাতীয় গ্রিডের সঙ্গে যুক্ত হয়ে কীভাবে সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা যায় তা নিয়ে এই নেট মিটারিং কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

৩৭০ টন কয়লা রেখেই বড়পুকুরিয়ার বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বন্ধ করা হয়েছিল জানিয়ে আহমদ কাউকাস বলেন, ‘ঈদের সময় উত্তরাঞ্চলে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ জন্য বড়পুকুরিয়া বিদ্যুৎ কেন্দ্র সাত দিনের জন্য চালু করা হবে এবং এজন্য কয়লা মজুদ রয়েছে। ওই কয়লা দিয়েই কেন্দ্রটি চালানো হবে।’

বড়পুকুড়িয়া বিদ্যুৎকেন্দ্র চালাতে সরকার বর্তমানে কয়লা আমদানির চেষ্টা করছে জানিয়ে সচিব বলেন, ‘দিনাজপুরের বড় পুকুরিয়ার বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি সেপ্টেম্বরের শুরুতে পুরোদমে হবে। আর এটা সচল করতে প্রয়োজনে বিদেশ থেকে কয়লার আমদানি করা হবে। এজন্য উচ্চপর্যায়ের একটি কমিটিও করা হয়েছে।’

‘ভারতের কয়লায় এটি চালানো সম্ভব নয়। গঠিত কমিটি অস্ট্রেলিয়া থেকে কয়লা আমদানি করা যায় কি না তা পর্যালোচনা করবে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহি চৌধুরী। দেড় লাখ টন কয়লা গায়েবের ঘটনায় সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বিষয়টির তদন্ত চলছে। এ বিষয়ে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।’