পঞ্চগড়ে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

পঞ্চগড়ে মালিক শ্রমিক যৌথ ৭টি সংগঠনের ডাকে বুধবার (৪ জুলাই) দুপুর থেকে পরিবহন ধর্মঘট চলছে। হঠাৎ করে পরিবহন ধর্মঘটের কারণে সাধারণ মানুষ বিপাকে পড়েছেন।

সরেজমিনে পঞ্চগড় পৌরসভার প্রধান সড়কগুলোতে ঘুরে দেখা যায় পরিবহন ধর্মঘট হলেও অন্যান্য যানবাহন মোটরসাইকেল, বাইসাইকেল, রিকশা, আটোরিকশা, অটো, ইজিবাইক, পাগলু, এসব চলাচলে প্রচন্ড যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে এবং দ্রুত পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার চায় পঞ্চগড়বাসী।

পথচারীদের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। ধর্মঘট বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাধারণ জনগণ। জানা যায়, পঞ্চগড়ে ট্রাক, ট্রাক্টর, ট্যাংলড়ি ও কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির সংগঠন দুটি আজ দুটো মালিক সমিতি যথাক্রমে পঞ্চগড় ধনীপাড়া এলাকা ও শীংপাড় এলাকায় তাদের সংগঠনের চাঁদা বহি দিয়ে প্রতি ট্রাক ট্যাংলরিতে ১০০ টাকা চাঁদা আদায় শুরু করে। এই ১০০ টাকা শ্রমিক কল্যাণ চাঁদা নিয়ে দুই ট্রাক ট্যাংলরি মালিক সমিতির মধ্যে অসন্তোস সৃষ্টি হয়। অতঃপর মালিক সমিতি যৌথ ৭ পরিবহন শ্রমিক সংগঠন অনিদিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয়।

এ ব্যাপারে মটর পরিবাহন শ্রমিক ইউনিয়ন এর সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আঃ রশিদ মুঠো ফোনে বলেন, একটি ট্রাক ট্যাংলরি মালিক সমিতি অবৈধ ভাবে ট্রাক চালক শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছে। এর প্রতিবাদে পরিবহন ধর্মঘট ডেকেছি। ট্রাক মালিক সমিতি চাঁদা আদায় বন্ধ না হলে পরিবহন ধর্মঘট চলবে।

পঞ্চগড় জেলার বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. শামিম হোসেন বলেন, আমাদের দাবি অবৈধ চাঁদা আদায় বন্ধ করা হোক। ট্রাক মালিক সমিতির মাধ্যমে যে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে তার সাথে শ্রমিক সংগঠনের কোন বার্গেটিং এজেন্ট নেই।

চাঁদা আদায়কারী ট্রাক ট্যাংলরি কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির সহসভাপতি মো. কাজল বলেন, আমাদের পূর্বের নেয় আমরা পুরাতন সংগঠন আগে আমরা ৬০ টাকা করে চাঁদা আদায় করেছি। এখন ট্রাক শ্রমিক কল্যাণের জন্য আজ থেকে ১০০ টাক চাঁদা আদায় করতেছি।

অপর আরেকটি ট্রাক ট্যাংলরি মালিক সমিতি সভাপতি মো. রুবেল পাটোয়ারী বলেন, আমাদের সাথে কয়েকটি শ্রমিক সংগঠন ১০০ টাকা চাঁদার সঙ্গে জড়িত তাদের সাথে কোন শ্রমিক সংগঠন এভাবে দুই ট্রাক মালিক সমিতির চাঁদা আদায়ের কারণে চলছে পঞ্চগড়ে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট।