এলএনজি সরবরাহ শুরু ১৫ জুলাই

চলতি মাসের মাঝামাঝি থেকেই আমদানি করা তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) সরবরাহ থেকেই কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদবিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী।

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান তৌফিক। বলেন, ‘কক্সবাজারের মহেশখালীর ভাসমান টার্মিনাল থেকে ১৫ জুলাই এলএনজি সরবরাহ শুরু হবে। প্রতিদিন ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মূল গ্রিডে সরবরাহ করা হবে।’

‘কাতার থেকে জাহাজ আসার পরও সাগর উত্তাল থাকায় এলএনজি সরবরাহে কিছুটা দেরি হয়েছে, এখন সব ঠিক হয়ে গেছে। এবার গ্যাস আরও কোন বাধা থাকবে না।’

‘মহেশখালীর টার্মিনাল থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত পাইপলাইন নির্মাণের কাজ শেষ। আরেকটা লাইন করছি সেটা আরও বড়।’

গত ২৪ এপ্রিল এক্সিলারেট এনার্জির ভাসমান টার্মিনালটি কাতার থেকে এলএনজি নিয়ে বাংলাদেশে আসে। এরপর ১০ মে প্রথম দফায় এলএনজি সরবরাহের দিন ঠিক করা হয়। এরপর ২৫ অথবা ২৬ মে দ্বিতীয় দফায় আরও একবার এলএনজি সরবরাহের দিনক্ষণ ঠিক করা হলেও সরবরাহ শুরু করতে পারেনি এক্সিলারেট এনার্জি।

এরপর জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহ ৬ থেকে ১২ জুনের মধ্যে যেকোনও একদিন এলএনজি সরবরাহের দিন নির্ধারণ করা হয়। তবে পাইপলাইনের ত্রুটির কারণে সরবরাহ শুরু করা যায়নি।

চতুর্থ দফায় ৪ জুলাই থেকে এলএনজি সরবরাহের কথা থাকলেও সাগর উত্তাল থাকায় সরবরাহ শুরু করা যায়নি।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, ‘কাতার ও ওমানের সাথে চুক্তি হয়েছে। আরেকটা জাহাজ আসছে সেটাও ৫০০ এমএমসিএফের। সামনের বছর তার সরবরাহ শুরু হবে। এর পরের বছর আরও ৫০০ এমএমসিএফের এলএনজি আসবে।’

দেশে জ্বালানির চাহিদা মেটাতে আমদানি করা এলএনজি দেশের জ্বালানি ব্যবহারের বড় একটি পরিবর্তন ঘটবে বলে মনে করেন এই উপদেষ্টা।

‘এলএনজি আমাদানির মাধ্যমে দেশের জ্বালানি ব্যবহারের বড় একটি পরিবর্তন আসবে। সারাদেশের মানুষ এতে উপকৃত হবে।’

এ সময় তিনি দেশের জ্বালানি খাতে বিনিয়োগকারী ও শিল্প উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান জ্বালানি উপদেষ্টা।

সেমিনারে সাংবাদিকরা প্রশ্ন রাখেন এলএনজি আমদানির কারণে শিল্পে গ্যাসের দাম কত বাড়বে। জবাবে তৌফিক বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে ধীরে ধীরে দাম বাড়ানো। কারণ এটা ব্যবসা সম্পৃক্ত সিদ্ধান্ত। হটাৎ করে দাম বেড়ে গেলে এটা অনেকেই সহ্য করতে পারবে না।’

‘বিশেষজ্ঞরা বলবে এটা ভর্তুকি । বিদেশিরা ভর্তুকি নিয়ে এখানে সমালোচনা করে, কিন্তু এর কারণে যদি কর্মসংস্থান করতে পারি এটা ভালো না ‘

এশিয়ান ইনফ্রান্সট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (এআইআইবি) ও পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ ( পিআরআই) যৌথ আয়োজনে সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিআরআই চেয়ারম্যান জায়েদ-ই সাত্তার।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অর্থ সচিব মুসলিম চৌধুরী, বিদ্যুৎ সচিব আহমেদ কায়কাউস, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন প্রমুখ।