সিলেটে বিদ্রোহী প্রার্থী সেলিমকে বহিষ্কার করলো বিএনপি | |

সিলেটে বিদ্রোহী প্রার্থী সেলিমকে বহিষ্কার করলো বিএনপি

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাহার না করায় মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহদপ্তর সম্পাদক মো. তাইফুল ইসলাম টিপুর স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বহিষ্কারের তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও দলের স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকার সুস্পষ্ট অভিযোগে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

একই বিজ্ঞপ্তিতে ময়মনসিংহ উত্তর জেলাধীন তারাকান্দা উপজেলা বিএনপির সদস্য মাসুদ রানা খানকে বিএনপির প্রাথমিক সদস্য পদসহ সব পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। দলীয় নেতাকর্মীদের এখন থেকে তাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ না রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে।

বহিষ্কারাদেশ সম্পর্কে সিলেটে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিম বলেন, ‘আমি ৩৯ বছরে দলের কেন্দ্রীয় কোনো পদ পাইনি। ক্ষোভ থেকে প্রার্থী হয়েছিলাম। কেন্দ্র থেকে আজ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। আমি বলেছিলাম, শরীর ভালো না, আমি একটু ঘুমাবো। পরে কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানাবো। আমাকে সেই সময়টুকু দেয়া হয়নি। আই অ্যাম নট আনহ্যাপি।’

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল গতকাল সোমবার। কিন্তু গতকাল পর্যন্ত সাত মেয়র প্রার্থীর কেউই তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি।

ওই সাত প্রার্থীর মধ্যে আজ প্রতীক বরাদ্দ করা হয়। এতে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী পেয়েছেন ধানের শীষ, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান পেয়েছেন নৌকা, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিম পেয়েছেন বাসগাড়ি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সিলেট মহানগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়ের পেয়েছেন টেবিল ঘড়ি, সিপিবি-বাসদ প্রার্থী আবু জাফর পেয়েছেন মই, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন পেয়েছেন হাতপাখা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এহসানুল হক তাহের পেয়েছেন হরিণ প্রতীক।