জেদ্দায় নিহত চার বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে | |

জেদ্দায় নিহত চার বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে

সৌদি আরবের জেদ্দায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ জন বাংলাদেশি নিহত, আহত হয়েছেন আরও এগার জন। ভোর বেলা কাজে যাওয়ার সময় এই দুর্ঘটনা ঘটে । বাদশাহ ফাহাদ হাসপাতালের হিমাগারে থাকা নিহত পাঁচ জনের মধ্যে চার জনের পরিচয় নিশ্চিত করেছে জেদ্দায় অবস্থিত বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ।

নিহত চার জন হলেন মো মনিরুল ইসলাম, পিতা: মহসিন হোসাইন, গ্রাম: মহিসওলা, পোস্ট: নড়াইল সদর, থানা ও জেলা নড়াইল। সৈয়দ হোসেন আলী, পিতা: সৈয়দ আশরাফ আলী, গ্রাম: লাহড়ীয়া, পোস্ট: লাহড়ীয়া বাজার, থানা: লোহাগড়া, জেলা নড়াইল। মোহাম্মদ শাহ আলম, পিতা: মোহাম্মদ সাইনুদ্দীন, গ্রাম: দেওলী, পোস্ট: পলাশবাড়ীয়া, থানা: মোহাম্মদপুর, জেলা: মাগুরা । মো: মনির, পিতা: কলম আলী, ৫/বেগমগঞ্জ লেন, সূত্রাপুর, ঢাকা । নিহত অপর এক জনের পরিচয় নিশ্চিতের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গতকাল ৪ জুলাই বুধবার আনুমানিক ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে সৌদি আরবের জেদ্দাস্থ গুলাইল এলাকা থেকে ১৬ জন বাংলাদেশি শ্রমিক মাইক্রোবাস যোগে কর্মস্থল আভর নামক এলাকায় যাওয়ার পথে কিং আব্দুল আজিজ সড়কে সামারী কোর্ট ও রেড সী মল মার্কেটের মাঝামাঝি এলাকায় পুলিশের গাড়ির সাথে সংঘর্ষে রাস্তার গতিরোধকে স্থাপিত বৈদ্যুতিক পুলের সাথে সজোরে ধাক্কা লেগে মাইক্রোবাসটি উল্টে যায়।

কনস্যুলেটের একটি প্রতিনিধি দল দুর্ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শনসহ সংশ্লিষ্ট ট্রাফিক বিভাগ, পুলিশ অফিস, আহত ব্যক্তি এবং উক্ত কোম্পানীতে কর্মরত অন্যান্য কর্মীদের সাথে আলাপ করে এই তথ্য নিশ্চিত করে জেদ্দাস্হ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ।

আহত ১১ জনের মধ্যে বাদশাহ ফাহাদ হাসপাতালে চার জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন, তারা হলেন: মোহাম্মদ ইসরাফিল শেখ, পিতা: ইসারত শেখ, গ্রাম: রামচন্দ্রপুর, পোস্ট: গ্রহতলা, থানা: নড়াইল সদর, জেলা নড়াইল । সুজন আহমেদ, পিতা: শামসুদ্দীন, গ্রাম: বাগলা, পোস্ট: ডিপুটি বাজার, থানা: গোলাপগঞ্জ, জেলা সিলেট। অপর ২ জনের তথ্য সংগ্রহ প্রক্রিয়া অব্যাহত।

বাদশাহ আব্দুল আজিজ হাসপাতালে দুই জন হলেন মোহাম্মদ ইলাহী, পিতা: শেখ দুদু মিয়া, মাগুরা সদর, জেলা মাগুরা । অপরজন মোহাম্মদ শাহজাহান মিয়া, পিতা: আব্দুল হাই, গ্রাম: ফোনারফদা, পোস্ট ও থানা: বাহুবল, জেলা হবিগঞ্জ।

সৌদি জার্মান হাসপাতালে তিন জন হলেন: মো: কবির শেখ, পিতা: মো: হিরো শেখ, গ্রাম: পরমল্লিক, গাজিপাড়া, গাজিপাড়া সদর, নড়াইল। মো: রুবেল ইসলাম, পিতা: আবুল কালাম, গ্রা: সোরগাজি, পোস্ট ও থানা চৌদ্দগ্রাম, জেলা-কুমিল্লা।ইমাম হোসেন, পিতা: আব্দুল জব্বার (আইসিইউ তে ভর্তি)

বাদশাহ আব্দুল্লাহ হাসপাতালে দুই জন হলেন মো: বাবুল, পিতা: ইউনুস জোমাদ্দার, গ্রাম: লাহড়ীয়া, পোস্ট: কালীগঞ্জ, থানা: লোহাগড়া, জেলা নড়াইল । মাসুম আহমেদ (প্রাথমিক চিকিৎসার পর হাসপাতাল ত্যাগ করেন)।

কনস্যুলেট টীম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসকদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন।