কাঁঠালের বিচি ও দেশি মুরগী | |

কাঁঠালের বিচি ও দেশি মুরগী

কথা না বাড়িয়ে চলুন রান্নায় যাই।

উপকরন ও পরিমানঃ (সাধারন ও সহজ রান্না)
– শুকনা কাঁঠালের বিচিঃ ৪০০ গ্রাম কম বেশী
– দেশি মুরগীঃ ৫০০ গ্রাম কম বেশি
– এলাচিঃ ৫/৬ টা
– দারু চিনিঃ ৪/৫ পিচ (ইঞ্চি)
– পেঁয়াজ কুঁচিঃ মাঝারি কয়েকটা
– রসুন বাটাঃ দুই চা চামচ
– গুড়া মরিচঃ এক চা চামচ কম বেশী (ঝাল বুঝে)
– হলুদ গুড়াঃ এক চা চামচ
– জিরা গুড়াঃ হাফ চা চামচ
– কাঁচা মরিচঃ কয়েকটা (আস্ত)
– লবনঃ পরিমান মত (হাফ চা চামচ দিয়ে শুরু করবেন, পরে লাগ্লে আরো দেয়া যাবে)
– তেলঃ ৬/৭ টেবিল চামচ, কম তেলেই রান্না ভাল!
– পানিঃ পনে এক কাপ কম বেশী বা ইচ্ছা, মুরগীর গোস্তের সিদ্ধ হবার উপর নির্ভর করবে এবং কেমন ঝোল রাখবেন তার উপর।

প্রনালীঃ (ছবি কথা বলে)
বিচি প্রিপারেশনঃ

ছবি ১, কাঁঠালের বিচি শুকিয়ে রাখতে হয়।

ছবি ২, শুকনা বিচি থেকে খোসা ছাড়িয়ে পানিতে ভিজিয়ে রেখে পাটা বা পাথরে ঘষে বিচির উপরের লাল চামড়া তুলে নিতে হবে, তার পর হাফ সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে রেখে দিতে হবে, রান্নার সময়ে এই প্রসেসড কাঁঠালের বিচি ব্যবহার হবে!

মুল রান্নাঃ

ছবি ১, রান্নার পাত্রে তেল গরম করে এলাচি ও দারুচিনি দিন।

ছবি ২, পেয়াজ কুচি দিন, এই সময়ে লবন দিয়ে দিন।

ছবি ৩, ভাঁজুন, পেঁয়াজের রঙ হলদে হয়ে যাবে। আগুন মাঝারি আঁচে থাকবে।

ছবি ৪, এবার আদা, রসুন ও জিরা গুড়া দিন। সামান্য সময় মিশিয়ে ভেজে নিন।

ছবি ৫, এবার হাফ কাপ বা কম পানি দিন।

ছবি ৬, মরিচ গুড়া ও হলুদের গুড়া দিন।

ছবি ৭, মাঝারি আঁচে মাঝে মাঝে নাডিয়ে ঝোল বানিয়ে ফেলুন।

ছবি ৮, আলাদা আলাদা মশলা পাতির নিজস্ব ঘ্রান হারিয়ে নুতন আলাদা একটা ঘ্রান বের হবে।

ছবি ৯, এবার মুরগীর গোস্ত দিয়ে দিন।

ছবি ১০, ভাল করে মিশিয়ে নিন।

ছবি ১১, ঢাকনা দিয়ে মাঝারি আঁচে মিনিট ১০/১৫ রাখুন।

ছবি ১২, এই অবস্থায় এসে যাবে।

ছবি ১৩, এবার প্রসেসড কাঁঠালের বিচি দিয়ে দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন।

ছবি ১৪, কয়েক মিনিটের জন্য ঢেকে রাখুন, মাঝারি আঁচে।

ছবি ১৫, এবার পরিমান মত ঝোল/পানি দিন।

ছবি ১৬, আগুন বাড়িয়ে একবার উত্রিয়ে আগুন মাঝারি আঁচ করে দিন।

ছবি ১৭, ফাইন্যাল লবন দেখুন, লাগলে দিন না লাগলে ওকে বলে এগিয়ে চলুন।

ছবি ১৮, কয়েকটা কাচা মরিচ আস্ত দিয়ে দিন (আমাদের কাছে কালো কাচা মরিচ ছিলো, এই গুলো একটু বেশী ঝাল)

ছবি ১৯, ব্যাস পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।