চাঁদা না দেয়ায় রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষের কার্যালয় ভাঙচুর | |

চাঁদা না দেয়ায় রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষের কার্যালয় ভাঙচুর

রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষের কার্যালয় ভাঙচুর করেছে ছাত্রমৈত্রীর নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

তবে ভাঙচুরের ঘটনা সম্পর্কে রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ এবং ছাত্রমৈত্রী নেতারা পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন।

অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান বলেন, গত বুধবার দুপুরে ছাত্রমৈত্রীর কয়েকজন নেতা আমার কার্যালয়ে এসে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। আমি চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে বৃহস্পতিবার দুপুরে ছাত্রমৈত্রীর মহানগর সভাপতি এএইচএম জুয়েল খান এবং সাধারণ সম্পাদক সম্রাট রায়হানের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জন এসে কার্যালয়ে ভাঙচুর চালায়। এ সময় কার্যালয়ে রক্ষিত ক্রেস্ট এবং চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করা হয়।

তবে চাঁদা দাবির বিষয়টি অস্বীকার করেছেন মহানগর ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক। তারা বলেন, জামিল আখতার রতন দিবস উপলক্ষে অধ্যক্ষকে দাওয়াত দেয়ার জন্য ছাত্রমৈত্রীর নেতাকর্মীরা তার কার্যালয়ে যান। এ সময় অধ্যক্ষ তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। এ কারণে বৃহস্পতিবার দুপুরে কয়েকজন নেতাকর্মী অধ্যক্ষের কার্যালয়ে গিয়ে এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। তবে ছাত্রমৈত্রীর নেতাকর্মীরা ভাঙচুরের সঙ্গে যুক্ত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বোয়ালিয়া থানার ওসি আমান উল্লাহ বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। কলেজ কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে অভিযোগ করলে ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।