বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন বাংলাদেশকে দাবিয়ে রাখা যাবে না | |

বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন বাংলাদেশকে দাবিয়ে রাখা যাবে না

চট্টগ্রামে বাংলাদেশ নেভাল একাডেমিতে বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশ হিসেবে সমৃদ্ধশালী হবো।

আজ বুধবার (২১ মার্চ) বেলা সোয়া ১১টার দিকে এই কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করেন তিনি।এর আগে, বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করতে বুধবার সকাল পৌনে ১১টায় চট্টগ্রাম পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে সকাল ১১টার দিকে মঞ্চে আসেন তিনি। একই সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪২ টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

যে ৪২ প্রকল্প উদ্বোধন করেন তা হচ্ছেঃ এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামে বসেই নগর এবং গ্রামের ৪২টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাবেশস্থল থেকে ১২টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন এবং ২৮টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

উদ্বোধনঃ উদ্বোধন করা হয়েছে আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু ফ্লাইওভার উদ্বোধন, চট্টগ্রাম জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্স ভবন, কালুঘাট-মনসার টেক জাতীয় মহাসড়কে (এন-১০৭) ৮ কিলোমিটারের ৮১ দশমিক ৯৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে পিসি গার্ডার সেতু (মিলিটারি সেতু), পটিয়া-চন্দনাইশ-বৈলতলী সড়কের ৩৪৮ দশমিক ১২ মিটার দৈর্ঘ্যরে খোদার হাট সেতু, বাংলাদেশ মহিলা সমিতি স্কুল এন্ড কলেজের আইসিটি সুবিধাসহ পাঁচতলা একাডেমিক ভবন, হাজেরা তজু ডিগ্রি কলেজের আইসিটি সুবিধাসহ পাঁচতলা একাডেমিক ভবন, খলিল মীর কলেজের আইসিটি সুবিধাসহ চারতলা একাডেমিক ভবন, পশ্চিম বাশখালি উপকূলীয় ডিগ্রি কলেজের আইসিটি সুবিধাসহ চারতলা একাডেমিক ভবন, ফটিকছড়ির হেয়াকো বনানী কলেজে আইসিটি সুবিধাসহ চারতলা একাডেমিক ভবন, রাঙ্গুনিয়া মহিলা কলেজের আইসিটি সুবিধাসহ পাঁচতলা একাডেমিক ভবন, মিরসরাই প্রফেসর কামাল উদ্দিন চৌধুরী কলেজে আইসিটি সুবিধাসহ চারতলা একাডেমিক ভবন, নাজির হাট মাইজভান্ডার সড়ক এবং শেখ রাসেল ভাস্কর্য ও পটিয়া দক্ষিণ ভূর্ষি শেখ রাসেল মঞ্চ।

ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছেঃ লালখান বাজার থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ, কর্ণফুলী নদীর তীর কালুরঘাট থেকে চাক্তাই পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ, চট্টগ্রাম নগরের জলাবদ্ধতা নিরসনকল্পে খাল পুনঃখনন সম্প্রসারণ, সংস্কার ও উন্নয়ন, চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া উপজেলার সাঙ্গু এবং ডলু নদীর তীর সংরক্ষণ প্রকল্প, কর্ণফুলী নদীর সদর ঘাট থেকে বাকলিয়ার চর পর্যন্ত ড্রেজিং, অনন্যা ৩৩/১১ কেভি জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, কল্পলোক ৩৩/১১ এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, মইজ্জ্যারটেক ৩৩/১১ কেভি এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, এফআইডিসি কালুরঘাট ৩৩/১১ কেভি এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, অক্সিজেন ৩৩/১১ কেভি এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, কাট্টলি ৩৩/১১ কেভি এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, মনসুরাবাদ ৩৩/১১ কেভি এমভিএ নতুন জিআইএস উপকেন্দ্র নির্মাণ, ১৮০ দশমিক ৩৭৩ মিটার দৈর্ঘ্যরে জরাজীর্ণ কালারপোল সেতু পুনঃনির্মাণ, কেরানিহাট-সাতকানিয়া-গুণাগুরি জেলা মহাসড়ক প্রশস্থকরণ, পটিয়া আনোয়ারা-বাশখালি টইটং আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্তকরণ, বড়তাকিয়া থেকে মিরসরাই ইকনোমিক জোন সংযোগ সড়ক নির্মাণ, বারৈয়ারহাট হেয়াকো-নারায়ন হাট-ফটিকছড়ি আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্তকরণ, পটিয়ার রাজঘাটা শ্রীমাই খালের ওপর ৬৩ মিটার দৈর্ঘ্যরে আরসিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ, ফটিকছড়ির নাজির হাট-জিসি-কাজির হাট সড়কে মন্দাকিনি খালের ওপর ৫৪ মিটার দৈর্ঘ্যরে আরসিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ, পটিয়ায় পিটিআই একাডেমিক ভবন নির্মাণ, সীতাকুন্ড টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে ওয়ার্কশপ বিল্ডিংসহ পাঁচতলা একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ, সরকারি মহিলা কলেজে ১০০ শয্যার ছাত্রী নিবাস নির্মাণ, আগ্রাবাদ মহিলা কলেজে আইসিটি সুবিধাসহ পাঁচ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ, পোস্তারপাড় চসিক মহিলা কলেজে আইসিটি সুবিধাসহ পাঁচ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ, চট্টগ্রাম মুসলিম ইনস্টিটিউট সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্স নির্মাণ, পটিয়া পৌর মাল্টিপারপাস কিচেন মার্কেট নির্মাণ, হর্টিকালচার সেন্টার এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নির্মাণ।