মুন্সীগঞ্জে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-গুলি উদ্ধার, কারখানার সন্ধান | |

মুন্সীগঞ্জে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-গুলি উদ্ধার, কারখানার সন্ধান

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গুলিসহ অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সাথে সেখানে অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধানও পেয়েছে পুলিশ। রোববার দিনগত রাত তিনটার দিকে চরকেওয়ার ইউনিয়নের গজারিয়া কান্দি এলাকায় অস্ত্র তৈরির কারখানাটি পাওয়া যায়।

সোমবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আসাদুজ্জামান।

উদ্ধারকৃত মালামালগুলোর মধ্যে রয়েছে-একটি দেশিয় তৈরি স্নাইপার রাইফেল, দুটি দেশীয় তৈরি ওয়ান শুটারগান, এক রাউন্ড রাইফেলের গুলি, নয় রাউন্ড পিস্তলের গুলি, চার রাউন্ড শর্টগানের গুলি, পিস্তলের দুটি গুলির খোসা, স্নাইপার রাইফেলের দুটি পাইপ, একটি ছোরা ও চাপাতি, একটি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির ড্রিল মেশিন, দুটি পিস্তল সদৃশ স্টিলের পাত, ছয়টি আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির স্প্রিং এবং লাগেজে ভর্তি আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জামাদি।

সংবাদ সম্মেলনে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আসাদুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামি মিজানুর রহমান পালিয়ে যান। তার বিরুদ্ধে সদর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে এবং পলাতক মিজানুর রহমানসহ সহযোগীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইউনুচ আলীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

অস্ত্র তৈরির কারখানার মূল হোতা মিজানুর রহমান (৩৮) গজারিয়ার কান্দি গ্রামের খোরশেদ দিদারের ছেলে। তার চৌচালা টিনের বসত ঘর থেকে সমুদয় মালামাল উদ্ধার করা হয়।