জগন্নাথে বসন্ত বরণে নানা আয়োজন | |

জগন্নাথে বসন্ত বরণে নানা আয়োজন

স্পর্শ, গন্ধ, বর্ণ, শব্দ, ছন্দ ও তানে ফাগুন যে আজ এসেছে ভুবনে। ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক, আজ বসন্ত। এই ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করতে নানা সাজে সজ্জিত হয় পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা।

সকাল থেকেই মেয়ে শিক্ষার্থীরা নানা রঙের শাড়ি, মাথার চুলে বাহারি রঙের ফুলের খোপা, হাতে বাহারি রঙের চুরি আর পায়ে লাল রঙের আলতা পরে ক্যাম্পাসে আসতে থাকে। মেয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ছেলে শিক্ষার্থীরা সাজে রঙ বেরঙের পাঞ্জাবি-পাজামায়। বাদ যায়নি উপাচার্য থেকে নিয়ে শুরু করে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষিকাও। সবার মনেই যেন লাগে বসন্তের ছোঁয়া।

মঙ্গলবার বসন্ত বরণ উপলক্ষে সকাল ১০টায় ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের উদ্যোগে এবং বেলা ১১টায় বাংলা বিভাগের উদ্যোগে ‘বসন্তোৎসব ১৪২৪’ উদযাপন অনুষ্ঠান বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষা শহীদ রফিক ভবন প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

উপাচার্য বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মূল কর্মকাণ্ড জ্ঞান অর্জন ও অন্বেষণ হলেও মানবিক সুকুমার বৃত্তি জাগ্রত করতে সাংস্কৃতিক চর্চার বিকল্প নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাহিত্য সংস্কৃতি চর্চার অন্যতম সুযোগ হয়ে ওঠে এধরনের উৎসবের মাধ্যমে। প্রকৃতিগতভাবেও বসন্ত উৎসব অন্যতম।’

ভিসি বলেন, ‘প্রতি বছর বাংলা বিভাগের নেতৃত্বে সবার সম্মিলিত অংশগ্রহণে বসন্ত বরণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। এজন্য আগামী বছর হতে আরও বড় পরিসরে বসন্ত উৎসব উদযাপনের জন্য আলাদা করে বাজেট বরাদ্দ দেয়া হবে।’

বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আরজুমন্দ আরা বানুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম ভূঁইয়া ও কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আতিয়ার রহমান বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলা বিভাগের সাংস্কৃতিক কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. পারভীন আক্তার জেমী।

এদিকে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের উদ্যোগেও নানা ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ‘বসন্ত বরণ ১৪২৪’ ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগে উদযাপিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগের চেয়ারম্যান, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।