সৌদি আরবে বাংলাদেশি ব্যবসায়ী খুন | |

সৌদি আরবে বাংলাদেশি ব্যবসায়ী খুন

প্রতিচ্ছবি ডেস্কঃ  সৌদি আরবের রিয়াদে এক ব্যবসায়ী বাংলাদেশি প্রবাসীকে পূর্বশত্রুতার জের ধবে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার। গত সোমবার  বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টার দিকে তার প্রতিষ্ঠানের পেছনে খুন করা হয়।

নিহত ব্যবসায়ী আজিজুল হক মাদবর শরীয়তপুর সদর উপজেলার  সুজনদোয়াল গ্রামের নুরমোহাম্মদ মাদবরের ছেলে।

নিহতের পরিবার বলছে, সৌদি আরবে  ফার্নিচার্স ব্যবসায়ী আজিজুলকে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে কয়েকজন সন্ত্রাসী ধরে নিয়ে তারই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পেছনে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে গাড়িতে করে আবার লাশ দোকানের সামনে ফেলে যায়।

পারিবারের সদস্যরা জানান, আজিজুল মাদবর বেশ কিছুদিন আগে এলাকা থেকে পাঁচজন লোককে সৌদি আরবে নিয়েছেন। এরমধ্যে মাত্র একজনকে কাজের পারমিশন (আকামা) করে দিয়েছেন। বাকি চারজনের আকামা  করতে পারেননি। ফলে ওই চারজন প্রবাসী বাইরে গিয়ে কাজকর্ম করতে না পারায় তারা বিদেশে খুবই অসুবিধায় দিন কাটাচ্ছে।

এ নিয়ে আজিজুল মাদবর ও আকামাবিহীন ওই চারজনের সঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। মাঝে-মধ্যে আজিজুলকে তারা জীবননাশের হুমকিও দিত।

সোমবার সকালে এরই জের ধরে আজিজুলকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা নিহতের পরিবারের।

নিহত আজিজুল মাদবর দীর্ঘ ১৯ বছর ধরে সৌদি আরবের রিয়াদে বসবাস করতেন। তার পরিবারও সৌদি আরবে বসবাস করেন।

নিহত আজিজুলের লাশ বর্তমানে রিয়াদের একটি হাসপাতালের হিমাগারে রাখা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে শিগগির লাশ দেশে আনা হবে বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

নিহত আজিজুল হক মাদবরের মামি শাশুড়ি নাজমা বেগম বলেন, আজিজুল যাদের বিদেশে নিয়েছে- তাদের আকামা করে দিতে না পারায় তারাই তাকে সোমবার সকালে ধরে নিয়ে হত্যা করেছে বলে আমাদের ধারণা। আমরা এ হত্যার বিচার দাবি করছি।

ডোমসার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান চানমিয়া মাদবর বলেন, আজিজুল দীর্ঘদিন ধরে বিদেশে থাকে। শুনেছি, সৌদি আরবে আজিজুল মাদবরকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হত্যা করেছে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বলেন, সৌদি আরবে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার খবর এখনো আমার কাছে আসেনি। খবর নিশ্চিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।