দু’দিনের সফরে এবার ঢাকায় আসছেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী | |

দু’দিনের সফরে এবার ঢাকায় আসছেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী

ঢাকায় আসছেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী

প্রতিচ্ছবি রিপোর্টঃ এবার দুইদিনের সফরে ১৯ ডিসেম্বর ঢাকা আসছেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইল্ডিরিম। সফরকালে তিনি কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিনে পরিদর্শন করবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, এর আগে তুরস্কের ফার্স্ট লেডি এমিনি এরদোয়ান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুট ক্যাভুফোগলু বাংলাদেশ সফর করেছেন। সে সময়ে তারা রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুদের সঙ্গে তারা কথা বলেন এবং তাদের দেশত্যাগের কারণ, দুর্ভোগ, নির্যাতনের বর্ণনা ইত্যাদি শোনেন। রোহিঙ্গাদের সহায়তায় বাংলাদেশ সরকারের পাশে থাকার কথা ঘোষণাও দেয় তুরস্ক।

এবারের সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইল্ডিরিমের রোহিঙ্গা ইস্যুসহ অন্যান্য দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক আলোচনা হবে।

উল্লেখ্য, গত ৭ সেপ্টেম্বর হামলা-নির্যাতনের শিকার হয়ে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলমানদের সহয়তার জন্য ত্রাণ নিয়ে ঢাকায় এসেছিলেন তুরস্কের ফার্স্ট লেডি এমিনি এরদোয়ান। তুরস্কের ফার্স্ট লেডি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎও করেছিলেন। এছাড়া মিয়ানমারের রাখাইনে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের জন্য ১ হাজার টন ত্রাণ সাহায্য পাঠিয়েছিল তুরস্ক।

তুরস্কের ফার্স্ট লেডি ঢাকায়
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা দিতে ঢাকায় পৌঁছেছেন তুরস্কের ফার্স্ট লেডি এমিনি এরদোয়ান। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে তিনি ঢাকায় পৌঁছান।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের সাম্প্রতিক সংঘাতে বিপর্যস্ত রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের মানুষের অবস্থা দেখতে আজ বৃহস্পতিবার সকালে তিনি টেকনাফের উদ্দেশে রওনা হবেন এবং বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করবেন। এ সময় তার সঙ্গে থাকবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

কক্সবাজার থেকে ফিরে এসে ফার্স্ট লেডি এমিনি এরদোয়ান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে জানা গেছে। এদিকে, রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে গত শুক্রবার বিবৃতি দিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান। তিনি একে গণহত্যা বলেও উল্লেখ করেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে ফোন করে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের ব্যাপারে বাংলাদেশকে সহায়তার অঙ্গীকার করেন। এ ছাড়া তিনি মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চিকেও হুঁশিয়ার করেছেন।