অপুর জন্য খারাপ লাগছে: বর্ষা | |

অপুর জন্য খারাপ লাগছে: বর্ষা

প্রতিচ্ছবি ডেস্কঃ  শাকিব খান অপুকে ডিভোর্স দিচ্ছেন এ খবরটি গত একমাস ধরে গণমাধ্যমে বেশ জোরালোভাবেই প্রকাশ হয়ে আসছিল। কিন্তু শাকিব এ ব্যাপারে সরাসরি কিছুই বলেননি। দীর্ঘদিন পরে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ডিভোর্স নিয়ে কথা বলেছেন।

সেখানে শাকিব বলেছেন, গত ২২ নভেম্বর একজন আইনজীবীর প্রথম কথা হয়। ৩০ নভেম্বর তিনি ডিভোর্সের চিঠিতে সাইন করেছেন। তখন থেকেই আলোচিত জুটি শাকিব-অপুর সংসার ভেঙ্গে যাওয়ার খবরটি বেশ চাউর হয়েছে। এমনকি এটি রীতিমত ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’-তে পরিণত হয়েছে।

ঢাকাই সিনেমার আরেক আলোচিত অভিনেত্রী বর্ষা ওদের (শাকিব-অপুর) ডিভোর্সের ঘটনায় অপুর জন্য মর্মাহত। বর্ষা নিজের ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে অপুর জন্য সহমর্মিতার কথা তুলে ধরেন। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হল- ‘আমি একটু মর্মাহত হলাম শাকিব-অপুর সংসার ভেঙ্গে যাওয়ায়।

কারণ এতগুলো সফল সিনেমার জুটি তারা। ভেবেছিলাম তাদের নিজেদের মাঝে যেটুকুই মনোমালিন্য হয়েছিল, তা নিজেরাই মিটিয়ে নিয়ে সুখের সংসার করবে। কিন্তু না, তার বিপরীত হলো।’

শাকিব খান হঠাৎ অপু বিশ্বাসের নিকট ডির্ভোস লেটার পাঠিয়ে তাদের ৯ বছরের সংসারকে ভেঙ্গে দিল। এতদিনের ভালোবাসার সম্পর্ককে এত সহজেই ছিন্ন করে দিল, যা আসলেই মেনে নেয়া কষ্টকর।

বিশেষ করে খারাপ লাগছে অপু বিশ্বাসের জন্য, কারণ অপু নিজের পরিবার ও ধর্মকে দূরে ঠেলে শাকিবের কাছে এসেছিল।

শাকিবের উপর ভরসা রেখেই সব ছেড়ে সংসার করেছিল। কিন্তু সব কিছুই সে নিমেষেই শেষ করে দিল তালাকনামা পাঠিয়ে।
আমাদের একটা কথা মাথায় রাখা উচিত, আমরা যারা সেলিব্রেটি আছি, সাধারণ মানুষ তাদের আর্দশ মানেন। আর সেই আর্দশের আমরা যদি কিছুদিন পর পর এ রকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্ম দেই, তাহলে ভক্তরা কি শিখবে?

কি ফলো করবে। আমাদের মত সেলিব্রেটিদের উচিত একটু শাবানা ম্যাম, শাবনাজ-নাঈম, রাজ্জাক আঙ্কেলের দাম্পত্য জীবন অনুসরণ করা। কারণ তারা একেকজন কিংবদন্তী হয়েও তাদের সংসার, স্বামী, সন্তান নিয়ে সুখের সংসার করে গিয়েছেন। আমি আশা করি শাকিব-অপু তাদের পুরনো দিনের স্মৃতিগুলো স্মরণ করে সব কিছু ভুলে গিয়ে ছোট্ট সন্তানের কথা চিন্তা করে, তার উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা ভেবে, নতুন করে সুখের সংসার শুরু করবে।’

২০০৮ সালে শাকিব-অপু গোপনে বিয়ে করেন। এরপর গত বছর ২৭ সেপ্টেম্বর তাদের ঘরে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। সন্তানের নাম আবরাম খান জয়। অপু বিশ্বাস গোপনে আগলে রেখেছিলেন শাকিব খানের ঔরসজাত সন্তানকে।

কলকাতার একটি ক্লিনিকে জন্ম হয় জয়ের। সে সময় অপু বিশ্বাসের সিজার করা হয়। এসব তারা অনেকদিন গোপন রাখেন। বিয়ের কয়েক বছর তাদের সম্পর্ক ভালোই চলছিল। তবে একসময় তাদের সম্পর্ক ধীরে ধীরে অবনতি হতে থাকে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে চলতি বছরের ১০ এপ্রিল অপু বিশ্বাস সন্তান আবরামকে নিয়ে একটি চ্যানেলের লাইভে এসে বিয়ে ও সন্তানের খবর ফাঁস করেন। এতে শাকিবের সঙ্গে তার সম্পর্কের চরম অবনতি হয়। শাকিবের সঙ্গে অপুর মান-অভিমান চলে। একটা সময় গিয়ে নানা বিষয় নিয়ে শাকিবের সঙ্গে অপুর দূরত্ব বাড়তেই থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় বিবাহ-বিচ্ছেদের চরম এই সিদ্ধান্ত চলে আসে।